ঠাকুরগাঁও পৌর নির্বাচনে নজীরবিহীন সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড সংঘটিত হয়েছে : রিজভী

ঠাকুরগাঁও পৌর নির্বাচনে নজীরবিহীন সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড সংঘটিত হয়েছে : রিজভী

ঠাকুরগাঁও সদর পৌর নির্বাচনে নজীরবিহীন সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড সংঘটিত হয়েছে অভিযোগ করে বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব এডভোকেট রুহুল কবির রিজভী বলেছেন, ঠাকুরগাঁয়ে বিএনপি মনোনীত মেয়র প্রার্থীরা ভোট কেন্দ্র থেকে বের হতে না চাইলে তাদেরকে হ্যান্ডকাফ পরিয়ে বের করে দেয়া হয়েছে। সেখানে সাধারণ ভোটারদেরকে জোর করে ধাক্কা দিয়ে ভোট কেন্দ্র থেকে বের করে দিয়ে পুলিশ ও প্রিজাইডিং অফিসার নৌকা প্রতীকে ভোট দিয়েছে।

 

মঙ্গলবার নয়া পল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।

 

রিজভী বলেন, আপনারা জানেন গত পরশু দেশব্যাপী চতুর্থ দফায় ৫৫টি পৌরসভায় নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে। আগের ধাপের নির্বাচনগুলোর মতোই এ নির্বাচনও ছিল আওয়ামী সন্ত্রাসীদের দখলে। অনাচারের ভোট নিয়ে দেশ-বিদেশে সমালোচনার যে ঝড় উঠেছে সেটিকে পাত্তাই দেয় না নির্বাচন কমিশন।

 

বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব বলেন, ‘লক্ষীপুর জেলাধীন রামগতি পৌর নির্বাচনে ধানের শীষের এজেন্টদেরকে ভোট কেন্দ্রে ঢুকতে দেয়া হয়নি। সাধারণ ভোটাররাও আওয়ামী সন্ত্রাসীদের ভয়ে ভোট কেন্দ্রে যেতে সাহস পায়নি। সেখানে কালো পর্দার বাইরে ইভিএম মেশিন স্থাপন করে প্রকাশ্যে নৌকা প্রতীকে সীল মারতে বাধ্য করা হয়।’ ‘ময়মনসিংহের ত্রিশাল পৌরসভা নির্বাচনকে কেন্দ্র করে ব্যাপক সহিংসতা হয়েছে। সরকারি দল মনোনীত মেয়র প্রার্থী এবং আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থীর দ্বন্দ্বে সহিংসতা এতটাই ভয়াবহ ছিল যে সাধারণ ভোটাররা ভোট কেন্দ্রে গিয়ে ভোট দিতে সাহস পায়নি।

 

রিজভী বলেন, অভিনব সন্ত্রাসী কায়দায় ভোট ডাকাতির নির্বাচন অনুষ্ঠানের জন্য কে এম নুরুল হুদা ইতিহাসে অমর হয়ে থাকবেন।

 

এ সময় শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের বীর উত্তম খেতাব বাতিলের সরকারি অপচেষ্টার প্রতিবাদ করেন রুহুল কবির রিজভী।

 

কর্মসূচি:
আগামীকাল বুধবার বরিশাল বিভাগ বাদে ঢাকাসহ সারাদেশের মহানগর ও জেলা সদরে প্রতিবাদ সমাবেশ ও বিক্ষোভ অনুষ্ঠিত হবে। আগামীকাল ঢাকায় জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে সকাল ১০টায় ঢাকা মহানগর উত্তর ও দক্ষিণ বিএনপির উদ্যোগে ওই প্রতিবাদ সমাবেশ ও বিক্ষোভ অনুষ্ঠিত হবে। এছাড়া সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচনের দাবিতে বিএনপির মেয়র প্রার্থীদের উদ্যোগে আয়োজিত সমাবেশ আগামী ১৮ ফেব্রুয়ারি বরিশাল মহানগরে অনুষ্ঠিত হবে।
Share

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *