পুলিশের সাথে সংঘর্ষে আহত অর্ধশত , আটক ১২

পুলিশের সাথে সংঘর্ষে আহত অর্ধশত , আটক ১২

বিক্ষোভ ও টায়ার জ্বালানোর সময় হবিগঞ্জের পুলিশের সাথে সংঘর্ষে কমপক্ষে অর্ধশত যুবক ও শিক্ষার্থী আহত হয়েছে। এ সময় হবিগঞ্জের প্রাক্তন মেয়র জিকে গাউচের ছেলে, ভাই ও ভাগ্নিসহ বারোজনকে আটক করা হয়েছিল।

শুক্রবার হেফাজতে ইসলামের মোদী বিরোধী সমাবেশে হামলা এবং পাঁচজন নিহত হওয়ার বিরুদ্ধে শনিবার বিকেলে ছাত্রদল ও যুবদলের নেতাকর্মীরা বিক্ষোভ সমাবেশ করেন।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছে, জেলা ছাত্রদল ও যুবদলের নেতাকর্মীরা হবিগঞ্জের শাইস্তানগর অফিস থেকে মিছিল করলে পুলিশ তা থামিয়ে দেয়। এ সময় বিক্ষোভকারীদের সাথে পুলিশের ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া ও সংঘর্ষ হয়। এ ঘটনায় ১০ পুলিশ সদস্যসহ ছাত্রদল ও যুবদলের কমপক্ষে অর্ধশতাধিক নেতা-কর্মী আহত হয়েছেন।

আহত এক পুলিশ সদস্যকে জেলা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। আরও দশ পুলিশ সদস্য প্রাথমিক চিকিৎসা পেয়েছেন বলে জানা গেছে।

অন্যদিকে, জানা গেছে, ছাত্রদল ও যুবদলের আহত নেতাকর্মীরা গ্রেপ্তার এড়াতে নগরীর বেসরকারি হাসপাতাল ও ক্লিনিকে চিকিৎসা নিয়েছেন।

দলীয় সূত্রে জানা গেছে, বিএনপির কেন্দ্রীয় সমবায় বিষয়ক সম্পাদক ও হবিগঞ্জ পৌরসভার প্রাক্তন তিনবারের মেয়র জিকে গউছের ছেলে শিক্ষানবিশ ব্যারিয়াটার মনজুরুল কিবরিয়া প্রীতম , জি কে গউছের ছোট ভাই জিকে গফফার ও জি কে গাফফারের ছেলে রিফাতসহ অন্তত ১২ জনকে আটক করেছে।

হবিগঞ্জ সদর মডেল থানার ওসি (তদন্ত) দাউস মোহাম্মদ জানান, ছাত্রদল ও যুবদলের নেতাকর্মীদের প্রথমে সড়ক অবরোধ করতে নিষেধাজ্ঞা দেওয়া হয়েছিল। তারা পুলিশ নিষেধাজ্ঞার অমান্য করে টায়ারে আগুন ধরিয়ে দেয়। এ সময় তারা পুলিশের সাথে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। বিস্ফোরণে কমপক্ষে দশ জন পুলিশ সদস্য আহত হয়েছেন। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে পুলিশ রাবার গুলি ও টিয়ার গ্যাস নিক্ষেপ করেছে।

ওসি আরো জানান, রাস্তায় অগ্নিসংযোগ ও পুলিশের উপর হামলার সাথে জড়িত ১০ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। জিজ্ঞাসাবাদ শেষে তাদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Share

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *