মাওলানা সাঈদীর বিরুদ্ধে মামলা বাতিল চেয়ে আবেদনের শুনানি মুলতবি

মাওলানা সাঈদীর বিরুদ্ধে মামলা বাতিল চেয়ে আবেদনের শুনানি মুলতবি

আল্লামা দেলাওয়ার হোসাইন সাঈদীর বিরুদ্ধে যাকাত তহবিলের অর্থ আত্মসাতের মামলায় অভিযোগ গঠন বাতিল চেয়ে হাইকোর্টে রিভিশন আবেদনের শুনানি আগামী দুই সপ্তাহের জন্য মুলতবি করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার বিচারপতি এম. ইনায়েতুর রহিম ও মোঃ মোস্তাফিজুর রহমানের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ রাষ্ট্রপক্ষের সময় আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে এ আদেশ দেন।

আদালতে মাওলানা সাঈদীর পক্ষে আবেদনের শুনানি করেন সাবেক অ্যাটর্নি জেনারেল এ জে মোহাম্মদ আলী। সাথে ছিলেন আইনজীবী ব্যারিস্টার এহসান এ সিদ্দিক ও মুজাহিদুল ইসলাম শাহিন। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল মোঃ সরোয়ার হোসেন বাপ্পী। দুদকের পক্ষে ছিলেন আইনজীবী খুরশিদ আলম খান।

এ বিষয়ে ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল মোঃ সরোয়ার হোসেন বাপ্পী নয়া দিগন্তকে বলেন, আমরা দুই সপ্তাহ সময় চেয়েছি। আদালত শুনানি দুই সপ্তাহ মুলতবি করেছেন।

এ মামলা নিম্ন আদালতে আগামী ৭ এপ্রিল সাক্ষ্য গ্রহণের জন্য রয়েছে সে বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, মামলাটি হাইকোর্টে বিচারাধীন। আদালত শুনানি মুলতবি করেছেন। বিষয়টি সংশ্লিষ্ট আইনজীবী বিচারিক আদালতকে অবহিত করবেন।

গত ১ ফেব্রুয়ারি ইসলামিক ফাউন্ডেশনের (ইফার) জাকাতের অর্থ আত্মসাতের মামলায় বিচারিক আদালতে সাঈদীর বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠনের আদেশ বাতিল এবং অভিযোগ থেকে অব্যাহতি চেয়ে এ আবেদন করা হয়।

এতে বলা হয়, এই মামলার এফআইআর ও চার্জশিটে মাওলানা সাঈদীর বিরুদ্ধে যাকাতের অর্থগ্রহণ, বিতরণ এবং তা আত্মসাতের বিষয়ে কোনো অভিযোগ নেই। মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ২৫ জন সাক্ষীর জবানবন্দী গ্রহণ করেছে। রাষ্ট্রপক্ষের সাক্ষীরাও সাঈদী সাহেবের বিরুদ্ধে কোনো অভিযোগ উত্থাপন করেনি। জব্দ তালিকার দালিলিক ডকুমেন্টেও সাঈদী সাহেবের অর্থ আত্মসাতের কোনো তথ্য নেই।

এর আগে গত ১১ জানুয়ারি রাজধানীর পুরান ঢাকার বকশীবাজারে স্থাপিত অস্থায়ী ঢাকার বিশেষ জজ আদালত-১ এর বিচারক সৈয়দা হোসনে আরা এ মামলায় অভিযোগ গঠনের মাধ্যমে বিচার শুরুর আদেশ দেন। এ মামলায় আগামী ৭ এপ্রিল সাক্ষ্যগ্রহণের দিন রয়েছে বলে আইনজীবীরা জানান।

মামলায় দেলাওয়ার হোসাইন সাঈদীসহ এ মামলায় মোট ছয়জন আসামি। অপর পাঁচ আসামি হলেন- ইসলামিক ফাউন্ডেশনের সাবেক পরিচালক মোহাম্মদ লুৎফুল হক, মসজিদ কাউন্সিল ফর কমিউনিটি অ্যাডভান্সমেন্টের সাবেক চেয়ারম্যান মাওলানা আবুল কালাম আজাদ, বন্ধুজন পরিষদের প্রধান সম্পাদক মিয়া মোহাম্মদ ইউনুস, ইসলামী সমাজ কল্যাণ কেন্দ্রের সাবেক সভাপতি তোফাজ্জল হোসেন ও ইসলামিক ফাউন্ডেশনের মসজিদ কাউন্সিলের সহকারী পরিচালক মোঃ আব্দুল হক।

ইসলামিক ফাউন্ডেশনের যাকাত তহবিলের অর্থ আত্মসাতের অভিযোগে সংস্থাটির সাবেক পরিচালক (অর্থ ও হিসাব) আইয়ুব আলী চৌধুরী ২০১০ সালের ২৪ মে শেরে বাংলা নগর থানায় এ মামলা দায়ের করেন। মামলাটি তদন্ত করে দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) সহকারী পরিচালক ওয়াজেদ আলী গাজী ২০১২ সালের ৩০ এপ্রিল আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন।

উল্লেখ্য, মানবতাবিরোধী অপরাধের মামলায় আমৃত্যু কারাদণ্ড হওয়ার পর থেকে আল্লামা দেলাওয়ার হোসাইন সাঈদী এখন কাশিমপুর কারাগারে আছেন।

Share

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *