মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য সুখবর

মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য সুখবর

শিগগিরই মুক্তিযোদ্ধাদের সম্মানী ভাতা ১২ থেকে ২০ হাজার টাকা করা হচ্ছে বলে জানান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

 

সোমবার (১৫ ফেব্রুয়ারি) সকালে গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সে ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে মুক্তিযোদ্ধাদের সম্মানী ভাতা ইলেকট্রনিক পদ্ধতিতে প্রদানের কার্যক্রম উদ্বোধন করে প্রধানমন্ত্রী এ কথা জানান।

 

যাদের ত্যাগ আর একাগ্রতায় একাত্তরে গর্জে উঠেছিল পরাধীন বাংলা। স্বাধীনতার জন্য যারা বুক পেতে দিয়েছিলেন বন্দুকের নলে। সেই বীর মুক্তিযোদ্ধারাই স্বাধীন দেশের স্রষ্টা। সেই বীরদের ৯৬ সাল থেকে ভাতা দিয়ে সম্মানিত করে আসছে সরকার।

 

মুক্তিযোদ্ধাদের সম্মানী ভাতা ইলেকট্রনিক পদ্ধতিতে প্রদানের কার্যক্রম উদ্বোধনের মাধ্যমে এখন থেকে বাংলাদেশ ব্যাংকের মাধ্যমে জিটুপি পদ্ধতিতে টাকা সরাসরি যাবে তাদের ব্যাংক অ্যাকাউন্টে।

 

মুক্তিযোদ্ধাদের কল্যাণে সরকারের বিভিন্ন উদ্যোগ তুলে ধরেন শেখ হাসিনা। তিনি বলেন, শিগগিরই এই ভাতা ১২ থেকে ২০ হাজার টাকায় উন্নীত করা হবে।

 

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জানান, বঙ্গবন্ধুকে হত্যার পর অবৈধভাবে ক্ষমতা দখল করে জিয়াউর রহমান মানুষের ভোট ও ভাতের অধিকার হরণের পাশাপাশি বেঁচে থাকার অধিকারও কেড়ে নিয়েছিল।

 

প্রধানমন্ত্রী বলেন, মুক্তিযোদ্ধাদের কল্যাণে কাজ শুরু করলেও, জাতির পিতাকে হত্যার পর ক্ষমতাগ্রহণকারীরা সব চেতনা নস্যাৎ করেছিল।

 

এর আগে ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনেই গণভবন থেকে বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা কল্যাণ ট্রাস্টের ট্রাস্টি বোর্ডের ৬৬তম সভায় অংশ নেন প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে বোর্ডের অন্য সদস্যরা।
Share

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *