হরতালের সমর্থনে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক রণক্ষেত্র

হরতালের সমর্থনে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক রণক্ষেত্র

হেফাজতে ইসলামীর সকাল-সন্ধ্যা হরতালকে কেন্দ্র করে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে সকাল থেকে দফায় দফায় সংঘর্ষ হয়েছে। এ ঘটনায় হেফাজত কর্মীদের লক্ষ করে বিজিবি গুলি ছুড়েছে বলে দাবি করেছে হেফাজত ইসলাম। এতে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের সাইনবোর্ড থেকে চিটাগাংরোড পর্যন্ত রণক্ষত্রে পরিণত হয়।

রোববার সকাল ৯টার দিকে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের সাইনবোর্ড এলাকায় টায়ার জ্বালিয়ে রাস্তা অবরোধ করে রাখে হেফাজতের কর্মীরা। সকাল সাড়ে ১০টার দিকে পুলিশ, র‌্যাব ও বিজিবি ধাওয়া দিয়ে হেফাজত কর্মীদের সরিয়ে দিলে প্রায় ১ কিলোমিটার দূরে সনারপাড় এলাকায় হেফাজতের আরেক গ্রুপ রাস্তা অবরোধ করে। এ সময় পুলিশ টিয়ারশেল, রাবার বুলেট ও ফাঁকা গুলি ছুড়লে উত্তেজনার সৃষ্টি হয়।

হেফাজতের দাবি, বিজিবির গুলিতে তাদের একজন নিহত হয়েছেন। এ ব্যাপারে অন্য কোনো সূত্র থেকে সত্যতা পাওয়া যায়নি।

এ ঘটনায় ঘণ্টাব্যাপী সংঘর্ষ চললেও পুলিশ হেফাজত নেতাকর্মীদের নিয়ন্ত্রণ করতে পারেনি। পরে পুলিশের পক্ষ থেকে হেফাজত কর্মীদের শান্তিপূর্ণভাবে মিছিল করার আহ্বান জানানো হয়। এ সময় হেফাজত কর্মীরা বলেন, ‘আল্লাহ যারা আমার ভাইকে গুলি করে হত্যা করলো তাদের তুমি ধ্বংস করে দাও।’ পরে উত্তেজিত নেতাকর্মীরা বিজিবির ওপর ক্ষিপ্ত হয়ে তাদের সামনে যায় এবং বলে বর্ডারে গুলি করতে পারো না, আনাদের ওপর কেন করো?

উল্লেখ্য, মোদিবিরোধী আন্দোলনে পুলিশের গুলি ও সরকারদলীয় নেতাকর্মীর হামলায় নিহত নেতাকর্মীর হত্যার প্রতিবাদে হেফাজতে ইসলামী আজ সকাল-সন্ধ্যা হরতালের আহ্বান করে।

সুত্রঃ নয়া দিগন্ত

Share

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *