সৌদিআরব প্রতিনিধি,
মোঃ ইব্রাহিম সরদার।
১৪৪২ হিজরির ৯ জিলহজ মোতাবেক আগামী ১৯ জুলাই আরাফাতের ময়দানে উপস্থিত হওয়ার মাধ্যমেই হজ পালন করবে মুসলিম উম্মাহ। হাদিসের ভাষায়- আল-হাজ্জু আরাফাহ অর্থাৎ আরাফাতের ময়দানে উপস্থিত হওয়াই হজ। মহামারি করোনার কারণে যথাযথ স্বাস্থ্য নিরাপত্তার মধ্য দিয়ে নির্ধারিত সংখ্যক ৬০ হাজার ধর্মপ্রাণ মুসলমান এ বছর হজে অংশগ্রহণ করবেন।
সৌদি আরবে শুক্রবার (৯ জুলাই) ছিল ২৯ জিলকদ। এ দিন দেশটির কোথাও জিলহজ মাসের চাঁদ দেখা যায়নি। ১০ জুলাই জিলকদ মাস ৩০ দিন পূর্ণ হবে। সে হিসেবে আগামী ১১ জুলাই (সৌদিতে) জিলহজ মাস গণনা শুরু হবে।
সৌদি আরবের সুপ্রিম কোর্টের তথ্য মতে, ১১ জুলাই (রোববার) জিলহজ মাস গণনা শুরু হবে; ১৯ জুলাই (সোমবার) ঐতিহাসিক আরাফাতের ময়দানে হাজিদের উপস্থিত হওয়ার মাধ্যমে অনুষ্ঠিত হবে পবিত্র হজ এবং ২০ জুলাই (মঙ্গলবার) থেকে শুরু হবে পবিত্র কুরবানি।
এর আগেই সৌদি আরবের সুপ্রিম কোর্ট দেশটির সব মুসলিমকে (৯ জুলাই মোতাবেক ২৯ জিলকদ) এ মর্মে চাঁদ দেখার আহ্বান জানান যে, কেউ যদি দেশের কোথাও খালি চোখে অথবা টেলিস্কোপে চাঁদ দেখতে পান, তাহলে যেন দেশটির নিকটস্থ আদালতে জানিয়ে দেন।
এদিকে সৌদি আরবের সব গণমাধ্যম সূত্রে জানা যায়, সৌদি আরবের রিয়াদে জিলহজের চাঁদ দেখার জন্য কেন্দ্রীয় চাঁদ দেখা কমিটির বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছে। বৈঠকে সৌদি সুপ্রিমকোর্টের পক্ষ থেকে চাঁদ দেখার জন্য গঠিত কমিটি সৌদি আরবের কোথাও চাঁদ দেখা না যাওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।
চাঁদ দেখা কমিটি আগামী ১১ জুলাই (রোববার) সৌদিতে জিলহজের প্রথম তারিখ ঘোষণা করেন। সে অনুযায়ী হজের গুরুত্বপূর্ণ রোকন উকুফে আরাফা আরাফা তথা এবারের হজ ১৯ জুলাই অনুষ্ঠিত হবে বলে জানান। দেশটিতে ২০ জুলাই (মঙ্গলবার) কুরবানির ঈদ উদযাপন করা হবে।
উল্লেখ্য, সৌদি আরব ছাড়াও সংযুক্ত আরব আমিরাত, ইরাক, লিবিয়া, সিরিয়া, ইয়েমেনসহ আরো বেশ কিছু দেশে ২০ জুলাই ঈদুল আজহা উদযাপিত হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!